হাঁপানির টান উঠেছে? সঙ্গে ইনহেলার না থাকলে কী করবেন জেনে নিন

চিকিত্সকদের মতে, শুধু শীতকালেই নয়, আবহাওয়ার পরিবর্তনের ফলে বছরের যে কোনও সময়েই হাঁপানি সমস্যা বাড়তে পারে। এই রোগ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বংশগত। তবে ইদানীংকালের মাত্রাতিরিক্ত দূষণের ফলে অনেকের মধ্যেই বাড়ছে হাঁপানির সমস্যা।

যাঁদের হাঁপানির সমস্যা রয়েছে, তাঁরা অনেকেই সতর্ক ভাবে চিকিত্সকের পরামর্শ মেনে নিজেদের সঙ্গে সব সময় ইনহেলার রাখেন। তবে যদি কখনও কাজের চাপে বা তাড়াহুড়োয় ইনহেলার কাছ ছাড়া হয়ে যায় আর মাঝ রাস্তায় হঠাত্ হাঁপানির সমস্যা শুরু হয়ে যায়, তাহলে কি করবেন? আসুন জেনে নেওয়া যাক…

১) অ্যাস্থেমা অ্যাটাক বা হাঁপানির টান উঠলে রোগী খুব তাড়াতাড়ি ক্লান্ত হয়ে পড়েন। এ ক্ষেত্রে কোনও ভাবেই শুয়ে থাকবেন না। কারণ, শুয়ে থাকলে বা ঝুঁকে বসে থাকলে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে আরও কষ্ট হয়।

২) অ্যাস্থেমা অ্যাটাক বা হাঁপানির টান উঠলে লম্বা লম্বা বেশ কয়েকবার শ্বাস নিন। এতে শ্বাস-প্রশ্বাসের গতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে। এর পর নাক নিয়ে লম্বা লম্বা শ্বাস নিয়ে তা মুখ দিয়ে ধীরে ধীরে ছাড়ুন। দেখবেন দ্রুত হাঁপানির কষ্ট কমে যাবে।

৩) হাঁপানির টান উঠলে গরম কফি খেয়ে দেখুন। গরম কফি ছাড়াও উষ্ণ জল খেলেও এই সময় সাময়িক ভাবে আরাম পাওয়া যায়।

৪) অ্যাস্থেমা অ্যাটাক বা হাঁপানির টান উঠলে অযথা ঘাবড়াবেন না। কারণ, এতে সমস্যা আরও বাড়বে। বরং চেষ্টা করুন এ সময় শান্ত থাকার বা টেনশন না করার।

আরও পড়ুন: বিহারে আতঙ্ক বাড়াচ্ছে এনসেফ্যালাইটিস! জেনে নিন এর খুঁটিনাটি

৫) হাঁপানির টান উঠলে হাতের কাছে যদি ইনহেলার না থাকে, তাহলে চেষ্টা করুন খোলামেলা জায়গায় কিছু ক্ষণ থাকতে। নাক-মুখের কাছে হাত-পাখা দিয়ে হওয়া করুন। আরাম পাবেন।

এই সব পদ্ধতিতেও যদি সমস্যা নিয়ন্ত্রণে না আসে সে ক্ষেত্রে দেরি না করে চিকিত্সকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

Check Also

সাপের মতো দেহ কিন্তু মানুষের মতো দাঁত, আশ্চর্য মাছের দেখা পেলেন কৃষকরা

প্রথমে সাপ ভেবেই ভুল করেছিলেন মারিয়া জুলিয়া কান্দোত্তি। কিন্তু তার পরে প্রাণীটিকে খুঁটিয়ে দেখে তিনি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *