Saturday , 20 July 2019

সুখী মানুষ হতে চান? কর্মক্ষেত্রে যাতায়াত করুন পায়ে হেঁটে

পায়ে হেঁটে যাতায়াত কি শুধু আপনার স্বাস্থ্যের জন্যই ভালো? না, বরং তা আপনার মানসিক স্বাস্থ্যকেও ভালো রাখে। আপনাকে করে তোলে একজন সুখী মানুষও। ইংল্যান্ডের একটি সাম্প্রতিক গবেষণা থেকে পাওয়া গেছে এই তথ্য। এখানে প্রায় ১৮ হাজার কর্মজীবী মানুষের ওপরে চালানো হয় একটি সমীক্ষা। এখানে তাদের জীবনযাত্রা নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। তারা নিজেদের যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভাবেন কিনা, তাদের নিজেকে অসুখী মনে হয় কিনা, নির্ঘুম রাত কাটাতে হচ্ছে কিনা এমন কিছু প্রশ্ন ছিল তার মাঝে।

এসব প্রশ্নের উত্তরের ওপর ভিত্তি করে প্রত্যেককে একটি করে “ওয়েল বিইং” বা ভালো-থাকা নম্বর দেওয়া হয়। ১৯৯১ থেকে ২০০৯ সালের মাঝে প্রত্যেকে এই সমীক্ষায় কমপক্ষে তিনবার অংশগ্রহণ করেন। সমীক্ষা শেষে দেখা যায়, যারা হেঁটে অথবা সাইকেল চালিয়ে কর্মক্ষেত্রে যাতায়াত করতেন, তাদের এই ওয়েল-বিইং স্কোর অন্যদের চাইতে বেশি হয়। যারা গাড়ি চালিয়ে কর্মক্ষেত্রে যান, তাদের অনেক ক্ষেত্রেই মনে হতে থাকে তারা অনেক বেশি স্ট্রেসের মাঝে আছেন এবং মনোযোগ ধরে রাখতে পারছেন না।

এর তুলনায় যারা হেঁটে বা সাইকেল চালিয়ে যাতায়াত করেন তারা অনেক ফুরফুরে মেজাজের হয়ে থাকেন। অংশগ্রহণকারীদের আয়, স্বাস্থ্য এমনকি সন্তান থাকা-না থাকার মতো ব্যাপারগুলো বিবেচনা করার পরেও দেখা যায়, হাঁটা বা সাইকেল চালানো মনের ওপরে ইতিবাচক প্রভাব রাখে। দেখা যায়, যারা আগে গাড়ি চালিয়ে যেতেন এবং পরবর্তীতে হাঁটা বা সাইকেল চালিয়ে যাওয়া শুরু করেন, তাদের মানসিক অবস্থায় অনেকটা উন্নতি দেখা যায়।

অদ্ভুত হলেও দেখা যায়, যারা পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবহার করে কর্মক্ষেত্রে যাতায়াত করেন, তাদের মানসিক অবস্থাও ভালো থাকে। অনেকের কাছে মনে হতে পারে পাবলিক বাস অথবা ট্রেনে যাতায়াতের ভিড়ে মানুষের স্ট্রেস বেড়ে যায়। আসলে কিন্তু এতে গাড়ি চালানোর স্ট্রেস থেকে রেহাই পাওয়া যায়, অনেকে সময় নিয়ে বই/খবরের কাগজ পড়তে পারেন, গান শুনতে পারেন এবং আশেপাশের মানুষের সাথে কথাবার্তা বলে নিজেকে রিল্যাক্স রাখতে পারেন, যা মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

আপনার কাছে পোষ্ট টি কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন ৷ T=(Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আরো ভালো ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

Check Also

প্রিয় মানুষটির প্রাথমিক চিকিৎসায় এই পাঁচটি ভুল করেন না তো?

কথায় কথায় ডাক্তারের কাছে ছুটতে ভালবাসে, এমন লোক খুঁজে পাওয়া কঠিন। ছোটখাটো চোট-আঘাত, ব্যথা যন্ত্রণায় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *