Monday , 14 October 2019

শরীরের ফাটা দাগ নিয়ে চিন্তিত? জেনে নিন ৫ অব্যর্থ প্রতিকার

এমন বেশ কয়েকটি ঘরোয়া উপায় রয়েছে যেগুলি কাজে লাগিয়ে সহজেই স্ট্রেচ মার্কস দূর করা যায়। স্ট্রেচ মার্কস অনেকেরই সৌন্দর্যের অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। স্ট্রেচ মার্কসের জন্য বেশি সমস্যায় পড়তে হয় মহিলাদের। কোমড়ে, পেটে, হাতে বা পায়ে স্ট্রেচ মার্কসের জন্য অনেক পছন্দসই পোশাক পড়তে সমস্যায় পড়তে হয়। আগে জেনে নেওয়া যাক, কেন হয় এই স্ট্রেচ মার্কস।

স্ট্রেচ মার্কস

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ওজন ঝরিয়ে রোগা হলে শরীরে স্ট্রেচ মার্কস দেখা দেয়। তাছাড়া, সন্তান ধারণের পর প্রায় সব মহিলারই পেটে আর কোমড়ে স্ট্রেচ মার্কস তৈরি হয়। বাজারে একাধিক ক্রিম বা জেল রয়েছে যেগুলি স্ট্রেচ মার্কস দূর করতে সাহায্য করে। তবে রাসায়নিক যুক্ত ওই সব ক্রিম বা জেল থেকে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার একটা ঝুঁকি কিন্তু থেকেই যায়। সে ক্ষেত্রে এমন বেশ কয়েকটি ঘরোয়া উপায় রয়েছে যেগুলি কাজে লাগিয়ে সহজেই স্ট্রেচ মার্কস দূর করা যায়। আসুন এ বার সেই সব ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

আলুর রস

আলুর রস:পাতলা করে আলু কেটে আলুর রস স্ট্রেচ মার্কের ওপর আলতো করে মালিশ করুন। ৫-১০ মিনিট রেখে উষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এ ভাবে সপ্তাহ খানেক স্ট্রেচ মার্কের ওপর আলুর রস মাখতে পারলে ফল পাবেন হাতে নাতে।

ডিমেরসাদা অংশ

ডিমের সাদা অংশ:ডিমের সাদা অংশ ভাল করে ফেটিয়ে স্ট্রেচ মার্কের ওপর আলতো করে মাখিয়ে রাখুন। মিনিট পনেরো এ ভাবেই রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। তার পর কোনও ময়েশ্চারাইজার মেখে নিন। যত দিন না দাগ হালকা হচ্ছে, এই পদ্ধতি কাজে লাগান।

লেবুর রস:যে কোনও দাগের ওপর লেবুর রস লাগিয়ে মালিশ করুন। এর পর মিনিট দশেক পর উষ্ণ জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। এ ভাবে সপ্তাহ খানেক স্ট্রেচ মার্কের ওপর লেবুর রস লাগিয়ে মালিশ করলে উপকার পাবেন।

কাঁচা হলুদের গুণাগুণ

হলুদ:সরষের তেল বা জলের সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে সেই মিশ্রণ একটু ঘন করে স্ট্রেচ মার্কসের ওপর লাগান। দিনে অন্তত ২ বার করে লাগান। ফল পাবেন হাতে নাতে।

অ্যালো ভেরা: ত্বকের বেশির ভাগ দাগ দূর করতে প্রতিদিন অ্যালোভেরার রস বা জেল ব্যবহার করতে পারেন যত দিন না দাগ হালকা হচ্ছে। উপকার পাবেন।

Check Also

একা থাকাবস্থায় হার্ট অ্যাটাক হলে দ্রুত এই ৪টি কাজ করুন

হার্টে যে কোন সময় সমস্যা দেখা দিতে পারে। বর্তমানে আমাদের দেশের জনসংখ্যার একটা বড় অংশ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *