মঙ্গলকেও হার মানালো কানাডার ঠান্ডা।

বিশ্ব জুড়ে উষ্ণায়নের বার্তা বারবার দিচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। তবুও জঙ্গল কাটছে মানুষ, গড়ে উঠছে কংক্রিটের শহর। তবে এবার বোধহয় পৃথিবী ছেড়ে মঙ্গলে যাওয়ার সময় হয়ে এসেছে। অন্তত কানাডার মানুষজন এমনটাই মনে করছেন। কারণ তাদের দেশ মঙ্গলের থেকেও ঠান্ডা হয়ে গেছে। ক্লাইমেট চেঞ্জ বা আবহাওয়া পরিবর্তন এতটাই চরম প্রভাব ফেলেছে পৃথিবীতে।

মঙ্গল, আন্টার্কটিকা কিংবা মাউন্ট এভারেস্টের সঙ্গে কম্পিটিশন দিতে পারে কানাডা। এতটাই ঠান্ডা পড়েছে সেখানে। বিভিন্ন শহরে -২০ ডিগ্রি থেকে -৩০ ডিগ্রিতে নেমেছে তাপমাত্রা। এমনকি কোথাও কোথাও -৪০ ডিগ্রি পর্যন্ত পারদ নেমেছে, যা বাসিন্দাদের জন্য সত্যিই আতঙ্কের। এই তাপমাত্রা পৃথিবীর কিংবা পৃথিবীর বাইরের শীতলতম জায়গাগুলির তাপমাত্রার সঙ্গে তুলনার যোগ্য।

দক্ষিণ মেরুতে বর্তমানে গ্রীষ্মকাল। সেখানে এখন মাত্র ঘণ্টাখানেকের জন্য সূর্য অস্ত যাচ্ছে। এই অঞ্চলের তাপমাত্রা এখন -১৬ ডিগ্রি, অর্থাৎ দক্ষিণ মেরুর থেকেও ঠান্ডা কানাডা। নাসার মহাকাশযান ‘কিউরিওসিটি’ তে মঙ্গলের যে আবহাওয়া ধরা পড়ছে তাতে, লালগ্রহের বিকেলের তাপমাত্রা থাকছে -২৩ ডিগ্রি। এই আবহাওয়ার সঙ্গে কানাডার বিশেষ তফাৎ নেই।

কানাডার টরোন্টোতে তাপমাত্রা নেমেছে -১৯ ডিগ্রিতে, মন্ট্রিয়ালে -২৪ ডিগ্রিতে, কালগারিতে -২৩ ডিগ্রিতে এবং উইনপেগে -২০ডিগ্রিতে। তবে রাতের তাপমাত্রা মঙ্গলে -৮০ ডিগ্রি। এটা শুনে কানাডার মানুষ অন্তত কিছুটা স্বস্তি পাচ্ছে। অন্যদিকে রাশিয়ার ওইমইয়াকনে -৫০ ডিগ্রি পর্যন্ত নেমে যায় তাপমাত্রা। এটাই পৃথিবীর শীতলতম বাসযোগ্য জায়গা

মাত্র ১ মাসে মাথার সামনে নতুন চুল গজানোর ৪ সহজ উপায়!

মাথার সামনের দিক পুরো ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে তো শীতে? তাই আজকের আর্টিকেল পড়ে নিন। দেখবেন ১ মাসে সমস্যার সমাধান হবে, নতুন চুলও গজাবে। মাথার সামনের চুল গজাতে যে প্রোডাক্ট অনবরত ব্যবহার করছেন, তাতে কি সত্যি মনের মত ফল পেয়েছেন?না তো। তাই ব্যবহার করুন এমন কিছু,যা সত্যি ভেতর থেকে সাহায্য করবে নতুন চুল গজাতে।

জানেন কি? আপনার হাতের কাছেই আছে চারটে খুব সহজ উপাদান, যেগুলো নতুন চুল গজাতে জাস্ট অনবদ্য। যেগুলো নিয়মিত ব্যবহার করলে, মাত্র একমাসেই পেতে পারেন সমাধান। কি সেই উপাদান? আর কিভাবেই বা ব্যবহার করবেন। চটপট দেখে নিন।

১/ ক্যাস্টর অয়েলঃ

ক্যাস্টর অয়েলের নাম নিশ্চয়ই শুনেছেন?নতুন চুল গজাতে সত্যি এর থেকে ভালো উপাদান বোধহয় আর কিছু হয় না।সেই জন্য যাদের ভুরু খুব কম থাকে,তাদের ক্যাস্টর অয়েল লাগাতে বলা হয় যাতে ভুরু মোটা হয়।এতে থাকা রিসিনলেইক নামক এক উপাদানই নতুন চুল গজাতে এতো সহায়ক।কিভাবে লাগাবেন দেখে নিন।

উপকরণ –

১ থেকে ২চামচ ক্যাস্টর অয়েল ও ২ থেকে ৩টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল।

পদ্ধতি –

ক্যাস্টর অয়েলের সাথে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের ভেতর যে তেল থাকে সেটা মেশান।এরপর জাস্ট ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করতে হবে।সারারাত একে রেখে দিন।পরদিন সকালে শ্যাম্পু করে ফেলুন।এক্ষেত্রে কোনো মাইলড শ্যাম্পুই ভালো বা যদি ভিটামিন ই ক্যাপসুল নাও পান তাহলেও অসুবিধা নেই।শুধু ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে ম্যাসাজ করে নিন।

সপ্তাহে দুদিন করুন।খুব তাড়াতাড়ি ভালো ফল পাবেন।তবে পর পর দুদিন নয়।কারণ এই তেল খুব ঘন।মাঝে তিন চারদিন ছেড়ে মাখুন।আর সপ্তাহে দুদিন মাখার সময় না থাকলে,শুধু ছুটির দিনটিই মেখে নিন।একমাসের মধ্যেই মাথায় নতুন চুল চোখে পড়বে।

২/ পেঁয়াজের রসঃ

পেঁয়াজে আছে প্রচুর সালফার যা নতুন চুল গজাতে দারুণ উপকারী।তাই পেঁয়াজ সত্যি অনবদ্য নতুন চুল গজাতে।

উপকরণ –

১টা পেঁয়াজ।

পদ্ধতি –

একটা পেঁয়াজ নিয়ে একটু ব্লেণ্ড করে নিন।এরপর এটা থেকে চিপে রস বার করে নিন।এই রস স্ক্যাল্পে হালকা একটু ম্যাসাজ করে লাগান।দুঘণ্টা রেখে দিন।সব থেকে ভালো আগেরদিন রাতে লাগিয়ে সারারাত রেখে দিলে।তারপর পরের দিন শ্যাম্পু করে ফেলুন বা একটু পেঁয়াজ কেটে সেটাও স্ক্যাল্পে ঘষতে পারেন।এটা সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন করুন।একমাস পর দেখবেন ছোট ছোট চুল গজিয়েছে মাথায়।

৩/ রসুনঃ

কি ভাবছেন পেঁয়াজ রসুন দিয়ে চুল গজাব? আজ্ঞে হ্যাঁ পেঁয়াজ রসুন এতটাই ভালো কাজ করে। কারণ একটাই এতে থাকা প্রচুর পরিমানে সালফার।

উপকরণ –

৪ থেকে ৫ কোয়া রসুন ও ১ থেকে ২চামচ নারকেল তেল।

পদ্ধতি –

রসুন প্রথমে ব্লেণ্ড করে নিন।এরপর এটা থেকে রস বার করে নিন।এবার এই রসের সাথে নারকেল তেল মিশিয়ে গরম করুন।এই গরম তেলটা স্ক্যাল্পে ভালো করে ম্যাসাজ করুন বা আরও ভালো হবে এই তেলের সাথে যদি কাঁচা রসুনের রস ১চামচ মিশিয়ে নিতে পারেন তাহলে আরও ভালো কাজ হবে।এই তেল রাতে ভালো করে সমস্ত স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করে লাগান।সারারাত রেখে পরেরদিন শ্যাম্পু করে ফেলুন।সপ্তাহে দুদিন করে করুন।ব্যাস তাতেই কাজ হবে।

৪/ সপ্তাহে একদিন আলুর প্যাকঃ

আলু শুধু না খেয়ে,চুল গজানোর চিকিৎসায় কাজে লাগান।এতেও খুব ভালো কাজ হয়।

উপকরণ –

২টা মাঝারি সাইজ আলু,১টা ডিম ও ১চামচ মধু।

পদ্ধতি –

আলু প্রথমে ব্লেণ্ড করে নিন।এরপর এটা থেকে রস বার করে নিন।এবার এই রসের সাথে,একটা ডিমের কুসুম ও মধু যোগ করুন।অল্প একটু জল দিন।ভালো করে মেশান।এবার এই প্যাকটা স্ক্যাল্প সহ পুরো চুলে লাগান ভালো করে।আধঘণ্টা রেখে দিন।তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন।মাইলড শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন।এটা সপ্তাহে একবার করে টানা কয়েকমাস করুন।একটা একটা খুব ভালো ট্রিটমেন্ট নতুন চুল গজাতে।

পোষ্টটা কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন৷ T= (Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আমরা ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

Check Also

মুখ্যমন্ত্রীর বিরাট বড় ঘোষণা। রেশন কার্ড থাকলে এক্ষুনি দেখুন, এক বিরাট ঘোষনা

রেশন কার্ড আমাদের সকলের কাছেই তো আছে। রেশন কার্ডের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ কেরোসিন তেল থেকে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *