Sunday , 5 April 2020

ভারতের ১০টি সবচেয়ে জাগ্রত ধর্মীয় গন্তব্যস্থল যা মৃত্যুর পূর্বে অবশ্যই আপনার দর্শন করা উচিৎ…

ভারত তার ধর্মীয় বৈচিত্র্যের জন্য পরিচিত। আমাদের সংস্কৃতিতে বিভিন্ন ধর্ম রয়েছে।

এখানে তালিকা দেওয়া হল ভারতের আশ্চর্যজনক ধর্মীয় ভ্রমণ গন্তব্য যেগুলি শুভ বিবেচনা করা হয় এবং সারা দেশের আসংখ্য মানুষ পরিদর্শন করে।

বৈষ্ণব দেবী পবিত্র এবং শ্রমসাধ্য তীর্থযাত্রা। বৈষ্ণব দেবীর যাত্রা এখন সহজ হয়ে গেছে। তীর্থযাত্রীরা ঘোড়া এবং খচ্চর ভাড়া করতে পারেন। হেলিকপ্টার সেবাও ব্যবহার করতে পারেন। বৈষ্ণব দেবী দর্শন নবরাত্রির সময় সর্বাধিক পবিত্র বলে বিবেচিত হয়।

হরিদ্বার বদ্রীনাথ এবং কেদারনাথ শিবের এবং বিষ্ণুর দুই পবিত্র জায়গার সিংহদ্বার। হর কি পৌরি ঘাট সবচেয়ে পবিত্র ঘাটগুলির মধ্যে অন্যতম কারণ এখানে মহাআরতি হয়। তা গঙ্গা আরতির জন্য বিখ্যাত যা প্রতিদিন সন্ধ্য ৭ টায় অনুষ্ঠিত হয়। হরিদ্বারের কাছাকাছি এখানে দেখার জন্য অন্য জায়গাগুলি হল মায়াপুরি ও কাঙ্খাল। মানসা দেবী বিল্ব পর্বত নামক পাহাড়ের উপরে অবস্থিত একটি মন্দির। রোপওয়ে দ্বারা এই মন্দিরে যেতে পারেন। অথবা কেউ উপরের দিকে ওঠার জন্যে স্বাভাবিক ট্র্যাকিং রুট নিতে পারে।

হাজী আলি দরগাহ মুম্বাইয়ের সবচেয়ে স্বীকৃত স্থানগুলোর অন্যতম। দরগাহে সায়েদ পীর হাজী আলী শাহ বুখারীর কবর আছে। সকল ধর্মের মানুষ হাজী আলীকে দর্শন করতে আসেন। হাজী আলী দরগাহে আসা সবার মন আশা এবং বিশ্বাসের সাথে পূর্ণ হয় ।

শিরিদি, শিরিদি সাঈ বাবার বাড়ি হিসাবে পরিচিত। এটি সবচেয়ে ধনী মন্দির সংস্থাগুলির মধ্যে একটি। পরিদর্শন করার অন্য জায়গা হলো নাসিকের ত্রিম্বকশার মন্দির, সর্বাধিক পরিদর্শন করা তীর্থযাত্রার মধ্যে একটি।

বেনারস ভারতের সবচেয়ে পরিদর্শন তীর্থযাত্রা। সাত পবিত্র শহরগুলির মধ্যে একটি। দ্বাদশ জ্যোতি লিঙ্গের অন্যতম স্থান এবং শক্তিপীঠ। পুরাণে বলে যে গঙ্গা জল শিবের ঐশ্বরিক সূত্রের তরল মাধ্যম বলে মনে করা হয়। সুতরাং, নদীতে স্নান করলে পাপ দূর হয় বলে বিশ্বাস করা হয়।

শ্রী ভেঙ্কটেশ্বর স্বামী মন্দিরটি একটি বৈচিত্রময় বৈষ্ণব মন্দির। তিরুমলা পাহাড়গুলি শেষাছালাম হিলস রেঞ্জের অংশ। বিশেষ অনুষ্ঠান এবং উৎসব পালন, বার্ষিক ব্রাহ্মতসাভভাম অনুষ্ঠানে তীর্থযাত্রীদের সংখ্যা ৫,০০,০০০ পর্যন্ত ছাড়িয়ে যায়। যার ফলে এটি বিশ্বের সবচেয়ে-পরিদর্শনীও পবিত্র স্থান ।

রামেশ্বরম হিন্দু মন্দির যা ঈশ্বর শিব নিবেদিত মন্দির অবস্থিত তামিলের রামেশ্বরমে। দ্বাদশ জ্যোতি লিঙ্গের অন্যতম স্থান। শৈব, বৈষ্ণব এবং শাক্তদের জন্য পবিত্র তীর্থস্থান।

হারমন্দির সাহেব গুরুদুয়ারা যা “গোল্ডেন টেম্পল” নামে পরিচিত। এটি ঈশ্বরের আধ্যাত্মিক বৈশিষ্ট্যের আবাস হিসাবে গণ্য করা হয়। গোল্ডেন টেম্পলের চুড়া সোনা এবং বহুমূল্য পাথর দিয়ে গঠিত। তাই এটি, “গোল্ডেন টেম্পল” নামে পরিচিত।

অক্ষরধাম গান্ধীনগরের হৃদয়ে অবস্থিত একটি মন্দির। মহাত্মা গান্ধীর জন্মভূমি, সবরমতি আশ্রম অবশ্যই পরিদর্শন করা উচিত।

উজ্জয়িনী মন্দির পবিত্র বলে মনে করা হয়। মহাকাল মন্দির সবচেয়ে পবিত্র ও শুভ মন্দিরগুলির মধ্যে একটি। উজ্জয়ী শৈব, বৈষ্ণব এবং শাক্তদের এক ধর্মীয় জায়গা। প্রতি বারো বছর অন্তর পূর্ণকুম্ভ আয়োজিত হয় যেখানে পবিত্র জলে স্নান করার জন্য বিপুল সংখ্যক মানুষ আসেন। অন্যান্য স্থান পরিদর্শন করার হল চিন্তমান গণেশ, মঙ্গলনাথ, কাল ভৈরব মন্দির, ইসকন মন্দির। কেউ উজ্জয়িনী থেকে স্বল্প দূরত্বের মধ্যে ইন্দোরেও যেতে পারে।

Check Also

মা সন্তোষী মা এই ৬ টি রাশির ব্যক্তিদের ভাগ্যের উন্নতি করতে চলেছেন,সফলতা আসবেই আসবে এবং আয় বৃদ্ধি পাবে।

মা সন্তোষী এই ৬ টি রাশির ব্যক্তিদের ভাগ্যের উন্নতি করতে চলেছেন,সফলতা প্রাপ্ত হবে এবং আয় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *