দৈনিক ৪১১ টাকার বিনিময়ে কন্যাকে দিন ৭৫ লক্ষ টাকার সুরক্ষিত ভবিষ্যৎ

বাড়িতে মেয়ে যেমন অনেক প্রকৃত শিক্ষিত বাবা মায়ের কাছে লক্ষী মনে হলেও আজও বেশিরভাগ গ্রামীন এবং অন্যান্য নিম্ন শিক্ষিত মানুষের কাছে তা দুশ্চিন্তার অন্যতম প্রধান কারণ। ভারতের মতো দেশে যেখানে আজও বেশিরভাগ মানুষ চায় তাদের যেন পুত্র সন্তান হয়, সেখানে মেয়েকে নিয়ে নানা প্রাচীন ধ্যান ধারণা আজও রয়ে গিয়েছে। আজ মেয়ে একটা বোঝা।

ছোট থেকে বড় করা, বিদ্যালয়ে পড়াশোনা শিখিয়ে স্বাক্ষর করা এবং প্রাপ্ত বয়স্ক হলে পণ দিয়ে বিয়ে দেওয়া এই সব কাজেই অনেক টাকার খরচ এরকমই ভাবে অনেকেই। আর তাই আজও ভারতীয়দের মেয়ে সন্তান নেওয়ার ক্ষেত্রে নিজের বা পরিবারের শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হয় পরিবার যদি আধুনিক চিন্তাধারার এবং সমসাময়িক মানসিকতা যুক্ত হয়ে থাকে তাহলেই সেই বাড়িতে কন্যা সন্তান সঠিকভাবে বড় হয়ে ওঠে।

যদিও জ্ঞানের আলো চারিদিকে প্রতিদিন যেভাবে ছড়িয়ে পড়ছে তাতে অনেকের মনেই পুরানো ভ্রান্ত ধ্যান ধারণা ধীরে ধীরে উঠে যাচ্ছে। কিন্তু সামগ্রিক ভাবে কন্যা সন্তানদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষা করার জন্য সরকারকেই নানা ভাবে এগিয়ে আসতে হয়েছে। আর এই লক্ষ্যেই নরেন্দ্র মোদী সরকার শুরু করেছিল “বেটি বাঁচাও এবং বেটি পড়াও” অভিযান।

যদিও এই অভিযানে নারী বা কন্যা সন্তানের আর্থিক ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করার তেমন কিছু উদ্যোগ নিতে দেখা যায় নি। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তা উপলব্ধি করেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে নিয়ে আসা হয় এক অন্যতম উপযোগী প্রকল্প সমস্ত কন্যা সন্তানদের আর্থিক সুরক্ষা দেওয়ার জন্য। আর এই প্রকল্প হল” সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা।”

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা কী

এটি একটি ক্ষুদ্র সঞ্চয় যোজনা যা আপনি বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বা পোস্ট অফিসে খুলতে পারেন ,যদি আপনার বাড়িতে কোন কন্যা সন্তান থাকলে আপনি করতে পারেন।

সদ্যজাত থেকে ১০ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত এই ক্ষুদ্র সঞ্চয়ী প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করা যাবে।কন্যাকে অবশ্যই ভারতীয় বসবাসকারী স্থায়ী নাগরিক হতে হবে এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য। একজন কন্যা সন্তানের অভিভাবক হিসাবে আপনি এই একাউন্ট খুলতে পারবেন।আর এই একাউন্ট খুলতে হলে আপনার সন্তানের জন্ম সার্টিফিকেট থাকতে হবে।দত্তক নেওয়া কন্যা সন্তানের ক্ষেত্রেও এই একাউন্ট খোলা যেতে পারে।

একজন কন্যা সন্তানের জন্য শুধুমাত্র একটি এইরকম একাউন্ট খোলা যেতে পারে।আর একজন অভিভাবকের সর্বোচ্চ দুই জন কন্যার জন্য এই একাউন্ট খোলা যেতে পারে। এই প্রকল্পে একটি একাউন্টে এক বছরে সর্বনিম্ন ২৫০টাকা জমা করতে পারেন এবং সর্বোচ্চ ১.৫০লক্ষ টাকা জমা করতে পারবেন। কিছুদিন পূর্ব পর্যন্ত সর্বনিম্ন টাকার পরিমাণ ১০০০টাকা ছিল।

এই একাউন্টে টাকা মাসিক হিসাবে ১০০এর গুনিতকে দেওয়া যেতে পারে বা এককালীন সর্বোচ্চ এক বছরে১.৫লক্ষ টাকা দেওয়া যেতে পারে।সর্বোচ্চ ১৫বছর ধরে এই একাউন্টে টাকা জমা করা যায়। এই একাউন্টে জমা দেওয়া টাকার পরিমান আয়করের সীমানা থেকে মুক্ত রাখা হয়েছে। অর্থাৎ আপনি যদি আপনার বেতনের টাকা এই একাউন্টে জমা রাখেন আপনার মেয়ের নামে সেক্ষেত্রে আপনার আয়কর হিসাবের ক্ষেত্রে প্রতি বছর সর্বোচ্চ ১.৫লক্ষ টাকা ছাড় পাবেন।

এই একাউন্টে মাচ্যুরিটি হওয়া টাকার ক্ষেত্রেও কোন আয়কর দিতে হয় না। একবার এই একাউন্ট শুরু করলে আংশিকভাবে বিশেষ কারনে টাকা তোলা যেতে পারে।কিন্তু এই একাউন্টের ধারকের বয়স ১৮বছর হলেই তবে একাউন্টে জমা হওয়া টাকার ৫০%তোলা যেতে পারে।

সাধারণত এই একাউন্ট ধারকের বয়স ২১বছর হলে স্বাভাবিক নিয়মেই একাউন্ট মাচ্যুরিটি লাভ করবে।তবে অনেক ক্ষেত্রে একাউন্ট ধারকের বয়স ১৮হলেও এই একাউন্ট বিশেষভাবে বন্ধ করা যেতে পারে।এক্ষেত্রে একাউন্ট ধারকের বিবাহের মতো ঘটনা ঘটলে একাউন্ট বন্ধ করা যেতে পারে।

এই একাউন্টে যদি একটি এক বছরের ন্যূনতম টাকা জমা দেওয়া না হয় তাহলে সেই একাউন্টটি “একাউন্ট ইন ডিফল্ট ” বলে গণ্য করা হবে।এবং এরকম একাউন্ট থেকে প্রতি বছর ন্যূনতম টাকা নেওয়ার সাথে সাথে ৫০টাকার মতো জরিমানা নেওয়া হবে।

এই একাউন্টে রাখা টাকা যদি ১৫বছর ধরে চালু না রাখা হয় তাহলে এই প্রকল্পের সুদ এবং সুবিধা পাওয়া যাবে না।তার বদলে পোস্ট অফিস বা ব্যাংকের সাধারণ সঞ্চয় প্রকল্পে যে সুদ পাওয়া যায় তা দেওয়া হবে।কিন্তু একাউন্ট গ্রাহকের অভিভাবকদের মৃত্যু ঘটে তাহলে এই নির্দিষ্ট যোজনার হারে পাওয়া সুদের হার দেওয়া হবে।

এই একাউন্টে রাখা টাকা ২১বছরের বেশি যদি কোন কারনে থেকে যায় তাহলে সেক্ষেত্রে বাড়তি সময়ের জন্য কোন অতিরিক্ত সুদ দেওয়া হবে না। যেভাবে আপনার কন্যাকে দিতে পারেন ৭৫লক্ষ টাকার ভবিষ্যৎ আর্থিক সুবিধা বর্তমানে এই একাউন্টে সুদের হার ৮.৫%। এই একই হারে সুদ থাকলে আপনার সদ্যজাত কন্যা সন্তানের জন্য যদি প্রতি বছর সর্বোচ্চ ১.৫লক্ষ টাকা জমা করতে পারেন তাহলে একাউন্ট মাচ্যুরিটি

অর্থাৎ ২১বছর হওয়া পর্যন্ত মাচ্যুরিটি মূল্য হয়ে দাঁড়ায় ৭৪,৯৬,৮০২বা প্রায় ৭৫লক্ষ টাকা । তাই আজই আপনার সদ্যজাত থেকে ১০বছর বয়সী মেয়ে থাকলে এই একাউন্ট খুলতে পারেন।এবং বন্ধু বা আত্মীয় স্বজনদের এই একাউন্ট খুলতে উৎসাহিত করতে পারেন যাদের ১০বছরের কম বয়স্ক কন্যা শিশু আছে।

পোষ্টটা কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন৷ T= (Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আমরা ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

Check Also

একজন বিকলাঙ্গ চুড়ি বিক্রেতা থেকে IAS অফিসার হওয়ার কাহিনী

কখনোই আর্থিক অবস্থা প্রতিভাকে হারাতে পারে না, তার ভুরি ভুরি প্রমাণ পাওয়া যায় সারা বিশ্বে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *