খালি পেটে বাদাম ধরে রাখবে যৌবন…

বাদামের গুণাগুণ অনেকেই জানেন না। যারা জানেন না তারা একবার চটজলদি চোখ বুলিয়ে নিন। আপনি জানেন কি যৌবন ধরে রাখতে বাদামের অবদান অনস্বীকার্য। বিশেষ করে সারারাত যদি সেই বাদাম জলে ভিজিয়ে রেখে খান তবে তো তার সুফল পাবেনই আপনি।

বাদাম যেভাবে যৌবন ধরে রাখতে সহযোগিতা করে-

১) এই বাদাম মেদ ঝরিয়ে, শরীরে ফোলাভাব কমায়।

২) হজম শক্তি বাড়িয়ে তোলে ভেজানো বাদাম।

৩) ভেজানো বাদামে ভিটামিন B-17 থাকে যা ক্যান্সার প্রতিরোধেও কাজ করে।

৪) শরীরের উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে ভেজানো বাদাম। তবে রোজ সকালে খালি পেটে খেলেই ভালো।

৫) গর্ভবতী মহিলাদের পক্ষেও নাকি ভালো এই বাদাম।

৬) বাদামে কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

মাত্র ১ মাসে মাথার সামনে নতুন চুল গজানোর ৪ সহজ উপায়!

মাথার সামনের দিক পুরো ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে তো শীতে? তাই আজকের আর্টিকেল পড়ে নিন। দেখবেন ১ মাসে সমস্যার সমাধান হবে, নতুন চুলও গজাবে। মাথার সামনের চুল গজাতে যে প্রোডাক্ট অনবরত ব্যবহার করছেন, তাতে কি সত্যি মনের মত ফল পেয়েছেন?না তো। তাই ব্যবহার করুন এমন কিছু,যা সত্যি ভেতর থেকে সাহায্য করবে নতুন চুল গজাতে। জানেন কি? আপনার হাতের কাছেই আছে চারটে খুব সহজ উপাদান, যেগুলো নতুন চুল গজাতে জাস্ট অনবদ্য। যেগুলো নিয়মিত ব্যবহার করলে, মাত্র একমাসেই পেতে পারেন সমাধান। কি সেই উপাদান? আর কিভাবেই বা ব্যবহার করবেন। চটপট দেখে নিন।

১/ ক্যাস্টর অয়েলঃ

ক্যাস্টর অয়েলের নাম নিশ্চয়ই শুনেছেন?নতুন চুল গজাতে সত্যি এর থেকে ভালো উপাদান বোধহয় আর কিছু হয় না।সেই জন্য যাদের ভুরু খুব কম থাকে,তাদের ক্যাস্টর অয়েল লাগাতে বলা হয় যাতে ভুরু মোটা হয়।এতে থাকা রিসিনলেইক নামক এক উপাদানই নতুন চুল গজাতে এতো সহায়ক।কিভাবে লাগাবেন দেখে নিন।

উপকরণ –

১ থেকে ২চামচ ক্যাস্টর অয়েল ও ২ থেকে ৩টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল।

পদ্ধতি –

ক্যাস্টর অয়েলের সাথে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের ভেতর যে তেল থাকে সেটা মেশান।এরপর জাস্ট ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করতে হবে।সারারাত একে রেখে দিন।পরদিন সকালে শ্যাম্পু করে ফেলুন।এক্ষেত্রে কোনো মাইলড শ্যাম্পুই ভালো বা যদি ভিটামিন ই ক্যাপসুল নাও পান তাহলেও অসুবিধা নেই।শুধু ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে ম্যাসাজ করে নিন।সপ্তাহে দুদিন করুন।খুব তাড়াতাড়ি ভালো ফল পাবেন।তবে পর পর দুদিন নয়।কারণ এই তেল খুব ঘন।মাঝে তিন চারদিন ছেড়ে মাখুন।আর সপ্তাহে দুদিন মাখার সময় না থাকলে,শুধু ছুটির দিনটিই মেখে নিন।একমাসের মধ্যেই মাথায় নতুন চুল চোখে পড়বে।

২/ পেঁয়াজের রসঃ

পেঁয়াজে আছে প্রচুর সালফার যা নতুন চুল গজাতে দারুণ উপকারী।তাই পেঁয়াজ সত্যি অনবদ্য নতুন চুল গজাতে।

উপকরণ –

১টা পেঁয়াজ।

পদ্ধতি –

একটা পেঁয়াজ নিয়ে একটু ব্লেণ্ড করে নিন।এরপর এটা থেকে চিপে রস বার করে নিন।এই রস স্ক্যাল্পে হালকা একটু ম্যাসাজ করে লাগান।দুঘণ্টা রেখে দিন।সব থেকে ভালো আগেরদিন রাতে লাগিয়ে সারারাত রেখে দিলে।তারপর পরের দিন শ্যাম্পু করে ফেলুন বা একটু পেঁয়াজ কেটে সেটাও স্ক্যাল্পে ঘষতে পারেন।এটা সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন করুন।একমাস পর দেখবেন ছোট ছোট চুল গজিয়েছে মাথায়।

৩/ রসুনঃ

কি ভাবছেন পেঁয়াজ রসুন দিয়ে চুল গজাব? আজ্ঞে হ্যাঁ পেঁয়াজ রসুন এতটাই ভালো কাজ করে। কারণ একটাই এতে থাকা প্রচুর পরিমানে সালফার।

উপকরণ –

৪ থেকে ৫ কোয়া রসুন ও ১ থেকে ২চামচ নারকেল তেল।

পদ্ধতি –

রসুন প্রথমে ব্লেণ্ড করে নিন।এরপর এটা থেকে রস বার করে নিন।এবার এই রসের সাথে নারকেল তেল মিশিয়ে গরম করুন।এই গরম তেলটা স্ক্যাল্পে ভালো করে ম্যাসাজ করুন বা আরও ভালো হবে এই তেলের সাথে যদি কাঁচা রসুনের রস ১চামচ মিশিয়ে নিতে পারেন তাহলে আরও ভালো কাজ হবে।এই তেল রাতে ভালো করে সমস্ত স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করে লাগান।সারারাত রেখে পরেরদিন শ্যাম্পু করে ফেলুন।সপ্তাহে দুদিন করে করুন।ব্যাস তাতেই কাজ হবে।

৪/ সপ্তাহে একদিন আলুর প্যাকঃ

আলু শুধু না খেয়ে,চুল গজানোর চিকিৎসায় কাজে লাগান।এতেও খুব ভালো কাজ হয়।

উপকরণ –

২টা মাঝারি সাইজ আলু,১টা ডিম ও ১চামচ মধু।

পদ্ধতি –

আলু প্রথমে ব্লেণ্ড করে নিন।এরপর এটা থেকে রস বার করে নিন।এবার এই রসের সাথে,একটা ডিমের কুসুম ও মধু যোগ করুন।অল্প একটু জল দিন।ভালো করে মেশান।এবার এই প্যাকটা স্ক্যাল্প সহ পুরো চুলে লাগান ভালো করে।আধঘণ্টা রেখে দিন।তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন।মাইলড শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন।এটা সপ্তাহে একবার করে টানা কয়েকমাস করুন।একটা একটা খুব ভালো ট্রিটমেন্ট নতুন চুল গজাতে।

পোষ্টটা কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন৷ T= (Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আমরা ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

Check Also

জেনে নিন জীবনের খারাপ সময়গুলো কাটিয়ে ওঠার মূলমন্ত্র… শেয়ার করে অন্যকেও জীবনযুদ্ধে সাহায্য করুন…

জীবনে খারাপ সময় যখন তখন আসতে পারে। আর সেই খারাপ সময় মোকাবেলা করার জন্য আমাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *