এই হেলমেটে নিষেধজ্ঞা জারি করল কেন্দ্র, আইন ভাঙলে পরিনাম হবে ভয়াবহ…

হেলমেট না পড়ে গাড়ি চালানোর ভয়াবহ পরিনতির সাক্ষী রয়েছে দেশ। প্রতিবছর শয়ে শয়ে মানুষ হেলমেট না পড়ে বাইক চালিয়ে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে। পাশাপাশি ট্রাফিক আই ভেঙেও কম মানুষের মৃত্যু হয় না। তাই এবার ট্রাফিক আইনকে আরও কড়াকড়ি করতে আঁটোসাঁটো ব্যবস্থা নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রক। বাইকআরোহীদের দৌরাত্ম্যে লাগাম টানতে নেওয়া হচ্ছে কড়া পদক্ষেপও।

গত কয়েক বছর ধরে হেলমেটের পড়ার ওপর বিশেষ নির্দেশ দেওয়া হলেও ট্রাফিক আইন না মেনে অনেকেই পুলিশের হাতে ধরা পড়ার ভয়ে পালানোর চেষ্টা করে। ফলে বিপদের আশঙ্কা থেকেই যায়। পাশাপাশি ঘটে প্রাণহানিও।তাই এবার থেকে হেলমেট ব্যবহারে আরও কড়াকড়িনিয়ম চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রক।

সেই বিষয়ে একটি নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে আইএসআই-এর অনুমোদনহীন এক বিশেষ ধরনের হেলমেট পড়তে হবে বাইক-আরোহীদের। পাশাপাশি, ওই নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে আইএসআই-এর অনুমোদিত হেলমেটের ওজন ১.২ কিলোগ্রাম থেকে বেশি ভারী হওয়া যাবে না। ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী হেলমেটটি IS 4151:2015এর হওয়া উচিত। আগামী বছরের ১৫ জানুয়ারির পর থেকে এই হেলমেট ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

এরপরও যদি কোনো বাইক আরোহী ওই বিশেষ ধরনের হেলমেট না ব্যবহার করে থাকেন সেই বাইক আরোহীর শাস্তি কি হবে সেই বিষয়ে কিছু স্পষ্ট্য করা নেই ওই নির্দেশিকায়। তবে কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনের ওই নিয়ম ভাঙলে শাস্তি পতে হবে হেলমেট প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলিকে। পাশাপাশি, দুলক্ষ টাকা জরিমানা ও জেলও হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

পোষ্টটা কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন৷ T= (Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আমরা ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

Check Also

স্মার্টফোনে পর্ন দেখেন? এখনই এই পাঁচটি বিপদ হইতে সাবধান

আপনার হাতের নাগালে ল্যাপটপ বা কম্পিউটার থাকলেও অনেক সময় অলসতাবসত স্মার্টফোনই এখন মানুষের প্রিয় বন্ধু। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *