আমাদের মস্তিষ্ক ঠিক কত জনের চেহারা মনে রাখতে পারে জানেন?

জন্মের পর থেকে মৃত্যু পর্যন্ত, একজন মানুষ তার সম্পূর্ণ জীবনকালে হাজার হাজার মানুষের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুযোগ পায়। ছোটবেলা থেকে বৃদ্ধ বয়স পর্যন্ত পরিবারের সদস্য ছাড়াও বন্ধু-বান্ধব, শিক্ষক, সহকর্মী, সহযাত্রী— এমন অসংখ্য মানুষের সঙ্গে আমাদের পরিচয় হয়। রাস্তাঘাটে অসংখ্য মানুষকে আমরা প্রতিদিন দেখি। তাদের মধ্যে অনেককে প্রায় নিয়মিত দেখতে পাই। কিন্তু এদের মধ্যে ঠিক কত জনের চেহারা আমরা মনে রাখতে পারি?

আরও স্পষ্ট করে বলতে গেলে আমাদের মস্তিষ্ক ঠিক কত জনের চেহারা মনে রাখতে সক্ষম জানেন? এর উত্তর রীতিমতো চমকে দেওয়ার মতো!

সম্প্রতি একটি মার্কিন গবেষণায় জানা গিয়েছে, একজন মানুষ গড়ে ৫০০০ চেহারা মনে রাখতে সক্ষম। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটির এক দল গবেষক পরীক্ষা চালিয়ে দেখেছেন, একজন মানুষ প্রায় ১০ হাজারের মতো মুখ মনে করতে পারছেন।

যাদের কথা মনে পড়ছে, তারা পরিবারের সদস্য, বন্ধু-বান্ধব, শিক্ষক, সহকর্মী, সহযাত্রী ছাড়াও বিখ্যাত অভিনেতা-অভিনেত্রী, রাজনীতিবীদ বা ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামের অনেক চেনা মুখ রয়েছে যাদের সঙ্গে কোনও রকম আলাপও নেই। জানা গিয়েছে, এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের বয়স ১৮ থেকে ৬১ বছরের মধ্যে।

মার্কিন গবেষক দলের প্রধান ডঃ রব জেনকিন্স জানান, এই গবেষণার মূল উদ্দেশ্য ছিল, প্রকৃতপক্ষে মানুষ কত সংখ্যক চেহারা মনে রাখতে পারে বা আমাদের মস্তিষ্ক ঠিক কী পরিমাণ অবয়ব মনে রাখতে সক্ষম, তা জানা। ডঃ জেনকিন্স জানান, একেক জনের মনে রাখার সামর্থ্য একেক রকম। এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের ১ ঘণ্টায় তাদের স্মরণে থাকা মানুষগুলির নাম লিখতে বলা হয়।

শুরুতে অংশগ্রহণকারীরা ঝটপট নাম লিখতে পারলেও শেষের দিকে এই গতি ক্রমশ কমে আসে। ডঃ জেনকিন্সের মতে, এ ক্ষেত্রে অংশগ্রহণকারীদের মনসংযোগ আর একাগ্রতার একটা বড় ভূমিকা রয়েছে। স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো ইউনিভার্সিটির গবেষকরাও এ বিষয়ে ডঃ জেনকিন্সের সঙ্গে একমত।

পোষ্টটা কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন৷ T= (Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আমরা ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

Check Also

এ কেমন শারীরিক সম্পর্ক! মুখের ভিতর রহস্যজনক লাল দাগ

জ্বালা-যন্ত্রণা ছিল না। অস্বস্তিও ছিল না কিছুই। কাজেই কিছু টের পাননি বছর সাতচল্লিশের ভদ্রলোকটি। দাঁতের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *