Monday , 14 October 2019

আজ সকালে চলে গেলেন ইনি, ক্রিকেট জগতে এক বিরাট শোকের ছায়া! স্তম্বিত সকলে!

বাংলায় একটা প্রচলিত কথা আছে, ‘জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে কোথা কবে’। অর্থাৎ জন্ম নিলে মরতেই হবে। সে সমস্ত প্রাণী দের ক্ষেত্রেই এই কথাটি প্রযোজ্য। একবার জন্ম গ্রহণ করলে তাকে মরতেই হবে, এই বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে কেউ অমর হয় না। কেউ অমর হতে পারে না। একটা সময় পরে সকলকেই চলে যেতে হয়।

মৃত্যু বলতে জীবনের সমাপ্তি বোঝায়। জীববিজ্ঞানের ভাষায় প্রাণ আছে এমন কোন জৈব পদার্থের জীবনের সমাপ্তিকে মৃত্যু বলে। অন্য কথায়, মৃত্যু হচ্ছে এমন একটি অবস্থা যখন সকল শারিরীক কর্মকাণ্ড যেমন শ্বসন, খাদ্য গ্রহণ, পরিচলন, ইত্যাদি থেমে যায়। কোন জীবের মৃত্যু হলে তাকে মৃত বলা হয়।

সম্প্রতি মারা গেলেন ভারতীয় ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত এক জনপ্রিয় ব্যক্তি। আপনারা জানেনই যে ভারতে ক্রিকেট ঠিক কতটা গুরুত্বপূর্ণ। ক্রিকেটই বেশিরভাগ ভারতীয়দের সবচেয়ে পছন্দের খেলা। সেই ভারতীয় ক্রিকেটের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র গতকাল হঠাৎই মারা গেলেন। আসুন জেনে নিই তিনি কে ছিলেন।

প্রয়াত হলেন ভারতীয় ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত বিশ্বনাথ দত্ত। ভাবছেন হয়তো এই বিশ্বনাথ দত্ত কে? ইনি কোন ক্রিকেটার ছিলেন না, ইনি ছিলেন, ভারতীয় ক্রিকেটের একজন নামকরা প্রশাসক। প্রায় ৫০ বছর তিনি ভারতীয় ক্রিকেট, বাংলার ক্রিকেট, ভারতীয় ফুটবলের একজন দক্ষ প্রশাসক ছিলেন। ৯২ বছর বয়স শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বিশ্বনাথবাবু।

গত কাল অর্থাৎ ২৪ সেপ্টেম্বর ভোর ৪টে ৭ মিনিটে দক্ষিণ কলকাতার তার নিজের বাড়িতেই তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি বার্ধক্য জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। হাসপাতালে ভর্তি করে কিছুটা সুস্থও হয়েছিলেন, সম্প্রতি বাড়িতেই তার চিকিৎসা চলছিল। সেখান থেকেই আজ সকালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

১৯৬৪ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত বিশ্বনাথ বাবু টানা সামলেছেন IFA-র সেক্রেটারি পদ। ১৯৮৬ থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত ছিলেন সিএবি প্রেসিডেন্ট। তার হাত ধরেই প্রশাসনে আসেন জগমোহন ডালমিয়া। ১৯৮৮ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত বচ্চী-এর সভাপতিও হয়েছিলেন। তার ছেলে সুব্রত দত্ত বর্তমানে AIFF-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট। দীর্ঘ ৫০ বছর ক্রীড়া প্রশাসন সামলে তিনি স্বেচ্ছাবসর নেন।

Check Also

বাঙালি পরিচয়ের আত্মার সঙ্গে জড়িয়ে থাকে সিডনির পুজো.

দেবী দুর্গা দুর্গতিনাশিনী। দশভূজা মহিয়সী, তেজস্বিনী। তাঁর রূপ,শিক্ষা,শক্তি অপরিসীম। তিনি অজেয়, অপার। বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের আদি জননী। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *